মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

হটলাইন

বাল্যবিবাহ, মূলত ১২ বছরের নিচের বয়সের বিবাহ যাদের বিবাহ সম্বদ্ধে মতামত দেবার মতো পরিণত বা সুযোগ তৈরি হয়না। বাল্যবিবাহ পরোক্ষভাবে আনুষ্ঠানিক বিবাহের মধ্যেই পড়ে।[৩৪] সাব-সাহারান আফ্রিকা, দক্ষিন এশিয়া এবং ল্যাতিন অ্যামেরিকায়ের গ্রামাঞ্চলে দরিদ্রতা এবং শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হবার কারনে শিশুদের সামনে বাল্যবিবাহ বা শীঘ্র আনুষ্ঠানিক বিবাহ গ্রহণ করা ব্যতীত অপর সুযোগ থাকেনা,[২৭] বাল্যবিবাহ প্রাথমিকভাবে দরিদ্র এলাকা সমূহে দেখা যায়। অভিভাবকেরা শিশুদের বিবাহ আয়োজন করে সন্তানের অর্থনৈতিক নিরাপত্তা, সামাজিক বন্ধন শক্তিশালী, নিশ্চিত ভবিষ্যৎ এবং মেয়ে সন্তানের অর্থনৈতিক বোঝা থেকে মুক্তি কারন তারা জানে খাবার, কাপড় এবং (ক্ষেত্রবিশেষে) মেয়ের শিক্ষা কতটা ব্যয়বহুল। অবস্থা সম্পন্ন যেকোন পরিবারের সাথে মেয়ে সন্তানের বিবাহ আয়োজন করতে পারলে সামজিক একটা বন্ধনের সাথে সাথে সামাজিক মর্যাদার উন্নতি ঘটে।[৩৫]

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter